অর্জুনের দলবদলের পর দিনই দিল্লিতে দিলীপ , কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকের সম্ভাবনা 

অর্জুনের দলবদলের পর দিনই দিল্লিতে দিলীপ , কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকের সম্ভাবনা 

আরোহী নিউজ ডেস্ক : বারাকপুরের সাংসদের দলবদলের পরেরদিনই দিল্লি যাচ্ছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে অর্জুন সিংয়ের সাংসদপদ এবং কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা হতে পারে।অর্জুনের দলবদলের পর বারাকপুরের সাংগঠনিক পরিস্থিতি নিয়েও কথা হওয়ার সম্ভাবনা। লোকসভা ভোটের আগে আরও যে অনেকে দল ছাড়তে পারেন, তা এদিন স্বীকার করে নিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ । তবে অর্জুনের দলত্যাগ নিয়ে দিলীপের 'প্রশাসনিক চাপে'র ব্যাখ্যা যে সরাসরি শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে তৃণমূলের দীর্ঘদিনের দাবিকে সমর্থন করছে, তা মেনে নিয়েছেন বিজেপি সমর্থকরাও। দলের হয়ে সাফাই দিতে গিয়ে এদিন দিলীপ বলেন, 'আসলে অর্জুন চাপে পড়ে চলে গিয়েছেন। ওঁর একাধিক ব্যবসা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এরপর হয়তো আর লড়াই করা সম্ভব ছিল না। প্রশাসনিক চাপ সহ্য করতে পারছেন না তাই আত্মসমর্পণ করেছেন। চাপে পড়ে তৃণমূলে গিয়েছেন, বাধ্য হয়ে গিয়েছেন।''

সুকান্ত-শুভেন্দু-অমিত মালব্যদের নেতৃত্বে যেভাবে তাসের ঘরের মতো রাজ্য বিজেপি ভাঙছে, তাতে গেরুয়া শিবিরের আশঙ্কা, লোকসভা ভোটের আগে আরও অনেক হেভিওয়েট দল ছাড়বে। দলবদলুদের নিয়ে ভিড় বাড়ানো গেরুয়া শিবির কার্যত ফাঁকা হয়ে যাবে। চরম হতাশ বিজেপি কর্মীদের মধ্যে দলবদলু সন্দেহভাজন নেতাদের নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আগামী ২৫ মে সমস্ত রাজ্যের দলের বিধায়ক ও সাংসদদের সঙ্গে ভারচুয়াল বৈঠক করবেন জে পি নাড্ডা। সুকান্ত-অমিতাভ-শুভেন্দুর নেতৃত্বে চলা বঙ্গ বিজেপিতে দল ক্রমশ ভাঙছে। জেলায় জেলায় বিদ্রোহ। এই পরিস্থিতিতে নাড্ডাকে ওইদিন কী রিপোর্ট দেবেন সুকান্ত-শুভেন্দুরা তা নিয়ে দলের অন্দরেই প্রশ্ন।