সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিন, বাংলাদেশ সরকারকে আর্জি কলকাতা ইসকনের

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা দিন, বাংলাদেশ সরকারকে আর্জি কলকাতা ইসকনের

আরোহী নিউজ ডেস্ক: দুর্গাপুজোর মধ্যে বাংলাদেশে উত্তেজনার পরিস্থিতি। কিছু অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীর বিরুদ্ধে মন্দিরে হামলার অভিযোগ উঠেছে। পুজোর সময় মণ্ডপে ভাঙচুর, সংখ্যালঘু হিন্দুদের ওপর হামলার ঘটনা নিয়ে উত্তাল দুই বাংলা। তা নিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কড়া বার্তা দিলেও উন্নতি হয়নি পরিস্থিতির। এবার তা নিয়ে সুর চড়াল কলকাতার ইসকন মন্দির কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশের বর্তমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে হাসিনা প্রশাসনকে চিঠি দিয়েছে কলকাতার ইসকন মন্দির কর্তৃপক্ষ। বাংলাদেশ সরকারের কাছে তাদের আর্জি, 'সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা দিন।' চিঠিতে জানানো হয়েছে, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দুদের ওপর হিংসার ঘটনায় আশঙ্কিত এবং ব্যথিত ইসকন। বৈষ্ণব মতাবলম্বী দুই বাংলাদেশি নাগরিক প্রান্তচন্দ্র দাস এবং যতনচন্দ্র দাসের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশও করা হয়েছে চিঠিতে। এবং একই সঙ্গে সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা দেওয়ার আর্জি জানানো হয়েছে।

অন্যদিকে, কুমিল্লায় দুর্গাপুজো মণ্ডপে ভাঙচুর এবং হিন্দু নাগরিক হত্যা নিয়ে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবেই সাম্প্রদায়িক অশান্তি সৃষ্টি করতেই এই ঘটনা ঘটিয়েছে এক শ্রেণির দুষ্কৃতীরা। কুমিল্লায় দুর্গাপুজো মণ্ডপে ভাঙচুর এবং হিন্দু নাগরিক হত্যা নিয়ে এমন কথাই জানাল বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। কুমিল্লায় হামলার পর প্রায় শতাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেই খবর।