ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই খেয়ে চলেছেন ওষুধ? হতে পারে বড় বিপদ! 

ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই খেয়ে চলেছেন ওষুধ? হতে পারে বড় বিপদ! 

আরোহী নিউজ ডেস্ক: শীতের এই সময় ঘরে ঘরে জ্বরজারি লেগে রয়েছে নিত্যদিন। তার উপরে করোনার চোখ রাঙানি তো রয়েছেই। জ্বর জ্বর মনে হলেই হাতের সামনেই থাকে যে ওষুধটি সেটি প্যারাসিটামল। হালকা মাথাব্যথা হোক বা জ্বর, মানুষ চিকিত্‍সকের পরামর্শ ছাড়াই খেতে শুরু করে দেন ক্যালপল, ক্রোসিন, ডলোর মতো প্যারাসিটামল গ্রোত্রের ওষুধগুলি। এই ওষুধগুলিই ডেকে নিয়ে আসতে পারে বড় বিপদ। 

ক্লিনিক্যাল ফার্মাকোলজিস্ট অর্পণ দত্ত রায় জানাচ্ছেন, মুড়ি মুরকির মত ওষুধ খেয়ে চলা খুবই বিপজ্জনক। প্রতিটি ওষুধের ডোজের একটা নির্দিষ্ট কোর্স থাকে। ডাক্তারের পরামর্শ না নেওয়ার ফলে সমস্যা কমে গেলেই সেই ওষুধ খাওয়া বন্ধ করে দেন সাধারণ মানুষ। আর সেখানেই বিপদের শুরু। 

বারবার একই ধরনের ওষুধ খেতে খেতে কিছুদিন পর শরীরে আর সেই ওষুধ কাজ করে না। তাছাড়াও বিভিন্ন ড্রাগের নানা সাইড এফেক্ট থাকে। সেক্ষেত্রে কার শরীরে কিভাবে তা রিয়্যাক্ট করবে তাও জানা থাকে না। তাই যে কোন সময়ে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া বাধ্যতামূলক। তবে দীর্ঘদিন অতিমারীর সঙ্গে লড়াই করে ক্লান্ত হয়ে পড়েছে মানুষ। অর্থনৈতিক সমস্যাতেও জর্জরিত তারা। সেক্ষেত্রে চিকিৎসক অর্পন দত্ত রায় পরামর্শ দিচ্ছেন , অন্তত পাড়ার কোন স্বাস্থ্য কর্মীর থেকে প্রয়োজনে জেনে নেওয়া যেতে পারে। কিন্তু সামান্য কিছুতেই চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ খাওয়ার মাশুল গুনতে হতে পারে সারাজীবন।