আরোহী নিউজ ডেস্ক : গৌরব চট্টোপাধ্যায়-দেবলীনা কুমারের বিয়ে। আশীর্বাদ দিতে উপস্থিত মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার সেই ছবি ইনস্টাগ্রামে দিয়ে স্মৃতি ভাগ করে নিয়েছেন উত্তম কুমারের নাতবৌ। সেখানেই যত বিপত্তি। মুখ্যমন্ত্রীর পদমর্যাদা লিখতে গিয়ে দেবলীনা অসাবধানে লিখে ফেলেছিলেন, ‘হেড অফ দ্য স্টেট’। সেই অনুযায়ী তাঁর বক্তব্য, ‘রাজ্যের প্রধান যখন বিয়েতে আপনাকে আশীর্বাদ জানাতে আসেন।’
এই ভুল নজরে আসতেই সঙ্গে সঙ্গে এক নেটাগরিক মন্তব্য করেন দেবলীনার পোস্টে। সোহম পাল নামের ওই ব্যক্তি অত্যন্ত বিনয়ের সঙ্গে লেখেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য সরকার এবং শাসকদলের প্রধান। রাজ্যের প্রধান নন।রাজ্যের প্রধান রাজ্যপাল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য সরকার প্রধান। কিছু ক্ষণের মধ্যেই সেই মন্তব্য নজরে আসে দেবলীনার। অভিনেত্রী নিজের ভুল প্রকাশ্যেই স্বীকার করে নেন। শুধরেও নেন তখনই।

কিন্তু তত ক্ষণে যা কেলেঙ্কারি হওয়ার হয়ে গিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর পদমর্যাদা ভুল লিখতেই নেটাগরিকদের কটাক্ষের শিকার দেবলীনা। সোহমের মতো আরও এক নেটাগরিক তাঁর ভুল ধরিয়ে দিয়েছেন। পাশাপাশি সেই নেটাগরিকের দাবি, বিশিষ্ট জনদের পদমর্যাদা লেখার আগে একটু পড়াশোনা করে নেওয়া ভাল। কেউ লিখেছেন, নুসরত জাহানের বিয়েতেও মুখ্যমন্ত্রী গিয়েছিলেন। আরেক জনের দাবি, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিয়েতে গিয়ে ‘পুরুতগিরি’ করছেন! এমন নজির দেশের অন্যান্য কোনও রাজ্যে নেই। সত্যিই ‘এগিয়ে বাংলা’!