বিশ্বজুড়ে বাড়ছে খাবারের দাম

83

আরোহী নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: করোনা পরিস্থিতি তে বিশ্বজুড়ে বাড়ছে খাবারের দাম। গত বছর থেকে গোটা বিশ্ব করোনা মহামারী মধ্যে দিয়ে চলছে আর তার জেরেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চলছে লকডাউন। আর তার ফলেই খাবার সরবরাহ ও কমেছে ।

উৎপাদন কম হওয়ায় অভাব দেখা যাচ্ছে খাদ্য দ্রব্যের তার জেরেই বাড়ছে খাদ্য দ্রব্যের দাম।গত দশ বছরে যা সর্বোচ্চ বলে দাবি FAO এর। বৃহস্পতিবার এমনই তথ্য উঠে এল সামনে। খাবারের দাম বৃদ্ধি মে মাসে যা হয়েছে সর্বোচ্চ। ১২৭.১ পয়েন্টে এসে দাঁড়িয়েছে। যা কিনা চলতি বছরের এপ্রিল মাসের তুলনায় ৪.৮ শতাংশ বেশি এবং গত বছর মে মাসের তুলনায় ৩৯.৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

FAO জানাচ্ছে, ভোজ্য তেল, চিনি ও দানাশস্যের দাম বৃদ্ধি পাওয়াতেই সামগ্রিকভাবে দাম বেড়েছে খাবারের। করোনা অতিমারিতে উৎপাদন কম হওয়ায় জোগান কম হচ্ছে। বিশেষত, ভোজ্য তেলের উপর এর প্রভাব আরো বেশি। আর যার জেরেই দাম বাড়ছে খাবারের। ভাটা পড়েছে গমের উৎপাদনেও। এদিকে, বিশ্বের বৃহত্তম চিনি উৎপাদক ব্রাজিলে করোনা সঙ্কটে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে চাষবাসে। চিনির রপ্তানি তাই বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এদিকে করোনাকালে ব্যাপকভাবে বেড়েছে প্রোটিনজাত খাবারের চাহিদা। এক্ষেত্রে সবথেকে বেশি আমদানি বাড়িয়েছে চিন। উৎপাদনের মাত্রা তেমন বৃদ্ধি না পাওয়ায় দাম বাড়ছে প্রোটিনজাত খাবারেরও। যদিও এর মধ্যে মাখনের দাম কমেছে নিউজিল্যান্ডের রপ্তানি বৃদ্ধির জন্য। সব মিলিয়ে আগামী দিনেও যে খাদ্যশস্যের দাম বৃদ্ধি পাবে তা খাদ্য ও কৃষি সংস্থার এই পরিসংখ্যানে স্পষ্ট।