কোণঠাসা শক্তিগড়ের ল্যাংচা, তবুও আশায় বুক বাঁধছেন ব্যবসায়ীরা

58

অরিত্র ঘোষ, কলকাতা: করোনা মহামারীর প্রবল ধাক্কায় কাহিল বর্ধমানের ঐতিহ্য শক্তিগড়ের ল্যাংচা। মারন ভাইরাস করোনা কে প্রতিহত করতে রাজ্যজুড়ে একাধিক বিধিনিষেধের মধ্যেও মিষ্টির দোকান খোলা রাখার ছাড় দেওয়া হয়েছে, তবে পরিবহন ব্যবস্থা কার্যত বন্ধ থাকায় বড় ক্ষতির মুখে পড়েছে শক্তিগড়ের ল্যাংচা মহল।

বর্ধমানের শক্তিগড় থেকে দু নম্বর জাতীয় সড়ক বরাবর কলকাতা আসার যে রাস্তা, সেই রাস্তার দু’পাশে রয়েছে অজস্র ল্যাংচার দোকান । বছরের অন্যান্য সময় ঠাসা ভিড় দেখা যায় এই দোকানগুলোতে, কিন্তু বর্তমান যে পরিস্থিতি সেই পরিস্থিতিতে একেবারেই কোণঠাসা হয়ে গিয়েছে ল্যাংচার দোকান গুলি।

বর্ধমানের বিখ্যাত ল্যাংচা মহল এর দোকানদাররা হালে যেন পানি পাচ্ছেন না। ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, ল্যাংচার দোকান গুলি মূলত নির্ভরশীল রাস্তার মধ্যে দিয়ে যাতায়াত করা যানবাহনের ওপর। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে যানবাহন ব্যবস্থা কার্যত বন্ধ। মেরে কেটে ছোট চারচাকা চলাচল করলেও বাস- সহ যাত্রী পরিবহনের অন্যান্য যানবাহন বন্ধ। আর সে কারণেই বেশ কিছুটা ক্ষতির মুখে পড়েছে বর্ধমানের শক্তিগড়ের ল্যাংচা মহল। তবে এই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে থেকেও একদিকে যেমন চিন্তার ভাঁজ ল্যাংচা ব্যবসায়ীদের কপালে, অন্যদিকে তাদের আশা খুব তাড়াতাড়ি স্বাভাবিক ছন্দে ফিরবে শক্তিগড়ের ল্যাংচা মহল। আর সেই আশাতেই বুক বাঁধছেন তারা।