নিভতে চলেছে অমর জওয়ান জ্যোতি, শুরু রাজনৈতিক চর্চা

নিভতে চলেছে অমর জওয়ান জ্যোতি, শুরু রাজনৈতিক চর্চা

আরোহী নিউজ ডেস্ক : ৭১ এর যুদ্ধের শহিদ সৈনিকদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ৫০  বছর আগে তৈরি হয়েছিল  ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’। ১৯৭২ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী এই রীতি উদ্বোধন করেছিলেন। রীতি মেনেই চলছে এখনও। তবে এবার মোদী সরকারের আমলে নিভতে চলছে সেই আলো। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর তৈরি করেছেন ‘ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়াল’ বা ‘জাতীয় যুদ্ধ স্মারক’। জানা গিয়েছে, সেই স্মারকের সঙ্গেই এবার মিশে যাবে অমর জওয়ান জ্যোতির আগুন।

ইন্ডিয়া গেটের কাছে রয়েছে সেই অমর জওয়ান জ্যোতি। ১৯৭১-এ পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধে জয়ী হয় ভারত, গঠন হয় বাংলাদেশ। সেই যুদ্ধে শহিদ জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এই স্মারক তৈরি হয়। সেখানেই জ্বালানো হয়েছে এক অনির্বাণ শিখা। ১৯৭২ সালে সেই স্মারকে প্রতিবার রীতি মেনে প্রজাতন্ত্র দিবসের সকালে অমর জওয়ান জ্যোতিতে শ্রদ্ধা জানান দেশের রাষ্ট্রপতি, দেশের প্রধানমন্ত্রী, নৌবহিনী, বায়ুসেনা ও স্থলসেনার প্রধান। বৃহস্পতিবার সেনাবাহিনীর তরফ থেকে জানা গিয়েছে, আগামী শুক্রবার নিভিয়ে দেওয়া হবে অমর জওয়ান জ্যোতির আগুন। ইন্ডিয়া গেট থেকে ৪০০ মিটার দূরে তৈরি হওয়া ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়ালের সঙ্গে মিশে যাবে সেই আগুন।

ইতিমধ্যেই এই বিষয় নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চর্চা।  রাহুল গান্ধীর নিজে টুইট করে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন।  তিনি টুইটে লিখেছেন, "এটা খুবই দুঃখের বিষয় যে আমাদের সাহসী সৈন্যদের জন্য যে অমর শিখা জ্বলেছিল তা আজ নিভে যাবে। কিছু লোক দেশপ্রেম এবং আত্মত্যাগ বুঝতে পারে না - কিছু মনে করবেন না... আমরা আমাদের সৈন্যদের জন্য আবারও অমর জওয়ান জ্যোতি জ্বালাব!"