আরোহী নিউজ ডেস্ক : কথায় আছে “প্রাণের শহর কলকাতা”, তবে আজ ন্যাশনাল ক্রাইম রিপোর্ট ব্যুরোর একটি রিপোর্টে দেখা গেল দেশের মধ্যে সবচেয়ে নিরাপদতম শহর কলকাতা। ২০১৮ সাল থেকে ২০০০ সালের মধ্যে দেশের অন্যান্য রাজ্যে যে হারে অপরাধের সংখ্যা বেড়েছে তার নিরিখে কলকাতা অনেকটাই নিরাপদ। মঙ্গলবার দিল্লি তরফ থেকে একটি রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে যেখানে মিলেছে এই তথ্য।

মঙ্গলবার ন্যাশনাল ক্রাইম রিপোর্ট ব্যুরোর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, দিল্লিতে অপরাধের হার ১৬০৮.৬, চেন্নাইয়ে ১৯৩৭.১, আহমেদাবাদে ১৩০০, সুরাতে ১৩০০, মুম্বইয়ে ৩১৮.৬। আর কলকাতায় সেই হার ১২৯. ৫। অন্যদিকে আইপিসি বা ভারতীয় দণ্ডবিধির নিরিখে ২০২০ সালে কলকাতায় অপরাধের হার ১০৯.৯। সেখানে যে অপরাধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ধারা লাগু করা হয়, সেই ক্ষেত্রে দেশের শহরগুলির মধ্যে দিল্লির অপরাধের হার ১৫০৬.৯, চেন্নাইয়ের ১০১৬.৪, মুম্বইয়ের ২৭২.৪, লখনউয়ের ৫০০.৩, সুরাতের ৭৩৭.৭, আহমেদাবাদের ৯৬৬.৫।

এর পাশাপাশি যদি ধর্ষণ বা নারী অত্যাচার ধরা যায় সেই নিরিখেও অনেকটা নিরাপদ শহর কলকাতা। কলকাতায় ধর্ষণের সংখ্যা ছিল ১১টি। সেখানে দিল্লিতে এই সংখ্যা ৯৬৭, জয়পুরে ৪০৯, মুম্বইয়ে ৩২২, বেঙ্গালুরুতে ১০৮। ২০২০ সালে অপহরণের সংখ্যা কলকাতায় ছিল ৩০৮। সেখানে দিল্লি, মুম্বই, জয়পুর, লখনউ-সহ দেশের বেশিরভাগ শহরেই এই অপরাধের সংখ্যা বেশি। চুরি বা ডাকাতির সংখ্যাও অন্যান্য শহরের থেকে কলকাতায় অনেকটা কম বলে জানিয়েছে এনসিআরবি রিপোর্ট। আর এই রিপোর্ট আসার পরেই খুশি কলকাতা পুলিশ। আর এই রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে বলাই যায়, দেশের মধ্যে এখন “মডেল” হয়ে দাঁড়িয়েছে কলকাতা।