আরোহী নিউজ ডেস্ক:  এক টানা বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে শহর কলকাতা। বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী এলাকাসহ বাংলাদেশের ওপর একটি নিম্নচাপ অবস্থান করছে। যার জেরে এই বৃষ্টিপাত জারি থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস। কলকাতার পাশাপাশি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে রাজ্যের আরও বেশ কিছু জেলাগুলিতেও। এই অবস্থায় জমা জল বের না করলে পরিস্থিতি আরও বিগড়ে যেতে পারে। সেই কথা মাথায় রেখেই আগাম প্রস্তুতি নিয়েছিল কলকাতা পুরসভা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি চলছিল। তবে বিকেল হতেই টানা বৃষ্টিতে জল জমতে থাকে মহানগরীর রাস্তাতে। সেই জল মোকাবিলা করতেই সচল রাখা হয়েছে ৭৪টি পাম্পিং স্টেশন। পাশাপাশি অতিরিক্ত পাম্প বসিয়ে জমা জল বের করার ব্যবস্থাও করা হয়েছে শহরের বিভিন্ন এলাকায়।

নিম্নচাপের জেরে লাগাতার বৃষ্টি চলছে কলকাতা ও শহরতলিতে। আলিপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে , বঙ্গোপসাগরের উপর একটি সুস্পষ্ট নিম্নচাপ তৈরি হওয়ায় এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেই সঙ্গে একটি মৌসুমী অক্ষরেখাও রয়েছে। এর ফলেই দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এদিকে শুক্রবার সকাল থেকেই কলকাতার আকাশ মেঘলা রয়েছে। আলিপুর আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস অনুযায়ী শুক্রবারও কলকাতায় বিক্ষিপ্তভাবে দফায় দফায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে শুক্রবার থেকে পশ্চিমের জেলাগুলোতে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়বে এবং গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলোতে বৃষ্টির পরিমাণ কিছুটা কমবে। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও পশ্চিম বর্ধমান, এই তিন জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলোতে সেইভাবে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সতর্কতা নেই।

গত ২৪ ঘণ্টায় দুই মেদিনীপুরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টাতেও দক্ষিণবঙ্গের সব জেলাতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হবে। কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, বীরভূম ও পূর্ব বর্ধমান জেলায় বৃষ্টি জারি থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টা সমুদ্র উত্তাল ও ঝোড়ো হাওয়ার দাপট বেশি থাকায় মৎস্যজীবীদের সমুদ্র যেতে নিষেধ করা হয়েছে। এদিকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় নিম্নচাপটি বিহার ও ঝাড়খন্ডের দিকে এগিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস।