আরোহী নিউজ ডেস্ক : চলতি সপ্তাহে ভারত বায়োটেকের কোভ্যাকসিনকে মান্যতা দিতে পারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। চলতি বছরেই ভারতে দুটি করোনা ভাইরাসের টিকা দেওয়া শুরু হয়েছিল। কোভিশিল্ড বহুদিন আগেই মান্যতা পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার। কিন্তু কোভ্যাকসিন নিয়ে জটিলতা বেড়েই চলেছিল। অনুমোদন মিললেই কোভ্যাকসিন রফতানি করতে পারবে ভারত বায়োটেক। পাশাপাশি কোভ্যাকসিন যারা নিয়েছেন তাদের বিদেশ যাত্রাও সহজ হবে।

প্রসঙ্গত, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার থেকে জরুরি ভিত্তিতে আবেদনের জন্য দীর্ঘদিন ধরেই চেষ্টা চালাচ্ছিল ভারত বায়োটেক। জুলাই মাসের গোড়ার দিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন জানিয়েছিলেন, চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে অনুমোদন পেতে পারে কোভ্যাকসিন। তিনি বলেছিলেন, অনুমোদন পাওয়ার জন্য একটি নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া মেনে চলতে হয়। সুরক্ষাজনিত তথ্য, সম্পূর্ণ ট্রায়ালের তথ্য পেশ করতে হয় সংস্থাগুলিকে। এমনকী অনুমোদন পাওয়ার জন্য উৎপাদনের গুণমান সংক্রান্ত তথ্যও দিতে হয়। ইতিমধ্যেই কোভ্যাকসিনের প্রস্তুতকারক সংস্থা ভারত বায়োটেক তথ্য জমা দিয়েছে।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পাওয়ার জন্য কোভ্যাকসিনের হয়ে আবেদন করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডবিয়া। দেখা করেছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানীর সঙ্গে। ট্যুইটারে মান্ডব্য বলেছিলেন, ডক্টর সৌম্য স্বামীনাথনের সঙ্গে বৈঠকে ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিনের অনুমোদন নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। শেষপর্যন্ত কোভ্যাকসিন নিয়ে জটিলতা কাটতে চলেছে বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।
ব্যুরো রিপোর্ট। আরোহী নিউজ।