লুঠের অভিযোগে পুলিশের জালে খোদ পুলিশকর্মীই

লুঠের অভিযোগে পুলিশের জালে খোদ পুলিশকর্মীই

আরোহী নিউজ ডেস্ক :  লুঠের অভিযোগে এবার দুই পুলিশ কর্মীকেই গ্রেফতার করল আরও দুই পুলিশ। ধৃতদের নাম শেখ আকবর ও শেখ জামির মণ্ডল। দু’জনই পার্ক সার্কাস ট্রাফিক গার্ডের কর্মী। একজন পুলিশের গাড়ি চালান। অন্যজন সিভিক ভলান্টিয়ার। বড়বাজার থানা এলাকার ঘটনা।বৃহস্পতিবার ধৃতদের ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হলে। বড়বাজার থানার পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানায়।

পুলিশ সূত্রে খবর, মঙ্গলবার ওসি বা অ্যাডিশনাল ওসিরা যে লাল গাড়ি ব্যবহার করেন, সেই গাড়ি নিয়ে শেখ আকবর ও শেখ জামির মণ্ডল একের পর এক ট্রাক দাঁড় করিয়ে বিভিন্ন নথি দেখতে চান। কারও কাছে আবার মিথ্যা কেস দিয়ে টাকাও নেন বলে অভিযোগ। ওই দুই পুলিশের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ, এক ট্রাক চালকের আধার কার্ড, অন্যান্য নথিপত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স, এমনকী চালকের সঙ্গে থাকা ৫ হাজার টাকা ও সোনার গয়নাও হাতিয়ে নেন। ভয় দেখিয়ে সে সব নিয়ে শেখ জামির মণ্ডল ও শেখ আকবর চম্পট দেন।

এরপরেই বড়বাজার থানায় গিয়ে অভিযোগ জানান ওই ট্রাক চালক। চালকের বক্তব্য শুনে তো চোখ কপালে ওঠে থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকদের। বুঝে যান, কিছু একটা গোলমাল হয়েছে। তাঁরা সন্দেহ করেন, এ কাজ কোনও পুলিশ কর্মীর নয়। এরপর ঘটনাস্থলে গিয়ে সিসিটিভি খতিয়ে দেখে আসল অভিযুক্তদের চিহ্নিত করেন তিনি। এদিকে ওই ফুটেজেই ধরা পড়ে পার্ক সার্কাস ট্রাফিক গার্ডের গাড়ি সেটি। সেখান থেকেই ওই সিভিক ভলান্টিয়ার ও পুলিশের গাড়ির চালককে গ্রেফতার করা হয়।