ওমিক্রন নিয়ে হু-র সতর্ক বার্তা 

ওমিক্রন নিয়ে হু-র সতর্ক বার্তা 

আরোহী নিউজ ডেস্ক : করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট এসে ফের একবার মনে করিয়ে দিচ্ছে কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারে এই মারণ সংক্রমণ। দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম খোঁজ মেলা করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট  বি.১.১.৫২৯-কে শুক্রবারই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফে ওমিক্রন নাম দেওয়া হয়েছে। এটিকে উদ্বেগের কারণ হিসাবেও  চিহ্নিত করা হয়েছে। নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট করোনার বাকি রূপগুলির তুলনায় আরও বেশি সংক্রামক ও ক্ষতিকারক হতে পারে বলেও ধারণা গবেষক-বিজ্ঞানীদের। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বিজ্ঞানী সৌম্য স্বামীনাথন এই বিষয়ে বলেন, “এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট সচেতন হওয়ারই একটি বার্তা, যারা করোনাবিধি অনুসরণ করছিলেন না। ভ্যাকসিন নেবার পরও সংক্রমণ রুখতে মাস্কের ব্যবহার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।করোনার আগের রূপগুলির সঙ্গে এই ভ্যারিয়েন্টের তুলনা করা উচিত নয়। নতুন ভ্যারিয়েন্টের চরিত্র বোঝার জন্য আরও গবেষণার প্রয়োজন। আপাতত টিকাকরণের উপরই জোর দেওয়া উচিত। এছাড়াও জনস্বাস্থ্যবিধিগুলিও মেনে চলা প্রয়োজন।” 

দেশে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট ধরা পড়লে তার সঙ্গে কীভাবে লড়াই করা হবে, এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “প্রাপ্তবয়স্কদের সম্পূর্ণ টিকাকরণ, ভিড় যথাসম্ভব এড়ানো, জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের হার আরও বাড়ানো এবং করোনা সংক্রমণ হঠাৎ বৃদ্ধি পেলে, তার উপর কড়া নজরদারি। বিজ্ঞান ভিত্তিক পরিকল্পনার মাধ্যমেই আমরা ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের সঙ্গে লড়তে পারি।” তিনি আরও জানান, করোনার নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের থেকেও বেশি সংক্রামক হতে পারে। তবে এখনই নিশ্চিতভাবে কিছু বলা সম্ভব নয়, বিজ্ঞানী ও গবেষকরা কাজ করছেন, আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই নতুন ভ্যারিয়েন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে। 

ইতিমধ্যেই এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট হংকং, ইজরায়েল ও বেলজিয়ামেও ছড়িয়ে পড়েছে।