আরোহী নিউজ ডেস্ক: চলতি মাসের ২৪ সেপ্টেম্বরই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে কোয়াড সামিট। আর এবার সেখানেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন সহ অস্ট্রেলিয়ান এবং জাপানি সমকক্ষদের সঙ্গে প্রথম ব্যক্তিগতভাবে আয়োজিত এই সম্মেলনে থাকতে চলেছেন। তবে, সেই সম্মেলনে মূল যে বিষয়টি উঠে আসবে তা হলো, কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে কত দ্রুত এবং সহজলভ্যভাবে ভ্যাকসিন সরবরাহ করা যায় আর সেই নিয়ে বিশ্বের প্রতিক্রিয়া কিরূপ।

গত মার্চ মাসে, জো বাইডেন প্রথমবারের জন্য ভার্চুয়াল মাধ্যমে কোয়াড নেতাদের নিয়ে কোয়াড সামিটের আয়োজন করেছিল যা একটি ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের জন্য সংগ্রাম করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। আর এই সম্মেলনের মূল উদ্দেশ্য ছিল মুক্ত, উন্মুক্ত, অন্তর্ভুক্তিমূলক, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধে আবদ্ধ এবং জোরপূর্বক নিরপেক্ষ একটি সূক্ষ্ম বার্তা চিনকে দেওয়া। প্রসঙ্গত; ভারত বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী। মার্চ মাসে, প্রধানমন্ত্রী মোদি অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনের রফতানি বন্ধ করেছিলেন যা বাজারের সবথেকে সস্তা ভ্যাকসিন ছিল।

অপরদিকে, আমেরিকার মতো উন্নয়নশীল দেশের মানুষদের যতটা সম্ভব দ্রুত টিকা দেওয়া যেতে পারে সেই দিকে চোখ ছিল সরকারের। আর সেখানে করোনাভাইরাসের অনিয়ন্ত্রিত বিস্তার যাতে না ঘটতে পারে, সেই জন্য বাইডেন প্রশাসনের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা আন্তর্জাতিক এক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ভ্যাকসিনের রপ্তানি যাতে পুনরায় শুরু করা যায় সেই নিয়ে ক্রমাগত কথা চালাচ্ছে মার্কিন সরকার। আর এবার সমস্ত বিষয় নিয়েই কোয়াড সামিটে কথা হবে বলে জানা গেছে।